যেকোনো কিছু স্ক্যান করুন ফোন দিয়েই

যেকোনো কিছু স্ক্যান করুন ফোন দিয়েই

বইয়ের লেখা বা যেকোনো ডকুমেন্ট পিডিএফ আকারে বা ছবি আকারে সংরক্ষণ করতে চাইলে আপনার মোবাইল ক্যামেরা ব্যবহার করে কাজটি সহজেই করতে পারবেন।

এর জন্য গুগল প্লে স্টোর, আইফোনের অ্যাপের স্টোর বা মাইক্রোসফট স্টোরে গিয়ে সার্চ করুন Microsoft Office Lens এবং সেটি ইনস্টল করুন। অ্যাপটি ওপেন করার পর নিচের মতো ক্যামেরা দেখতে পারবেন।
Microsoft Office Lens Bangla
ওপেন করার পর এমন আসবে। 

কিন্তু এটার বিশেষত্ব হলো এটি আপনি বই কিংবা ডকুমেন্ট এর পিকচার ধরলে এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে পৃষ্ঠার আকার লাল বর্ডার দ্বারা চিহ্নিত করবে। সঠিকভাবে চিহ্নিত করতে না পারলে সেটা পরে ক্রপ করে নিতে পারবেন। ক্যামেরা ধরার সময় বাঁকা হলে তা প্রক্রিয়া হওয়ার পর ঠিক হয়ে যাবে। ক্যাপচার করার পর সেটি প্রসেস হয়ে নিচের মতো দেখাবে। 
ক্যাপচার করার পর
ক্যাপচার করার পর সাদা কালো পেজের ক্ষেত্রে Filter আইকনে ক্লিক করে Whiteboard করে নিন। নিচের মতো করে। কাটতে হলে ক্রপ আইকনে ক্লিক করে কেটে নিন। এর লাল চেক মার্ক বাটনে ক্লিক করে যেকোনো ফরম্যাটে সেভ করে রাখতে পারেন।
এডিট করে সেভ বাটনে ক্লিক করুন

যেকোনো ফরম্যাটে সেভ করুন

সেভ করার পর মোটামোটি ভালো মানের একটি স্ক্যান স্ক্যান কোয়ালিটি পাবেন। নিচের নমুনাটি দেখে নিন:
Microsoft Office Lens Scan Example
সেভ করার পর
লেখাটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। এবং ট্রিকিটকে নিয়মিত ভিজিট করে আমাদের সাথেই থাকুন।

ফেসবুক পেজের মাধ্যমে আয় করুন । ফেসবুক মনিটাইজেশন এখন বাংলাদেশেও

ফেসবুক পেজের মাধ্যমে আয় করুন ।  ফেসবুক মনিটাইজেশন এখন বাংলাদেশেও

সারাদিন ফেসবুক কতোই না সময় নষ্ট করি। কেমন হয় যদি ফেসবুকে সমসময় নষ্ট করে টাকা আয় হয়? নিশ্চই ভালো। কিন্তু এর জন্য আপনাকে একটু কষ্ট করতে হবে।

ইউটিউবে যেমন ভিডিও দেখার সময় ভিডিওর নিচে বা ভিডিও থামিয়ে ইউটুব বিজ্ঞাপন দেখায়। তেমনি ইউটিউবের সাথে ফেসবুক পাল্লা দিতে Facebook Watch ফীচার চালু করেছে। এর ফলে যারা ভিডিও ক্রিয়েটর তারা তাদের ভিডিও থেকে টাকা আয় করতে পারবে। ভিডিও থামিয়ে এ বিজ্ঞাপন দেখানোর প্রক্রিয়াকে "এড ব্রেকস" বলা হয়। যেটা ফেসবুক ভিউয়েরদের অটোমেটিক দেখিয়ে থাকে।
২০১৭ সাল থেকে এড ব্রেকস শুধু ইউএস এ চালু ছিল। সম্প্রতি তা বাংলাদেশেও চালু হয়েছে।

ফেসবুক মনিটাইজেশন - ফেসবুক পেজের মাধ্যমে আয় করুন

ফেসবুক পেজ থেকে আয় করতে যা যা করতে হবে:

১) প্রথমে আপনাকে একটি ফেইসবুক পেজ বানাতে হবে যদি না থাকে। সেটা আপনি মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে করতে পারেন। মোবাইল দিয়ে করলে ফেইসবুক অ্যাপের মাধ্যমে করাই উত্তম হবে।

২) পেজ Create করার সময় ক্যাটাগরি Video Creator দিন। এটা পরেও দেয়া যায় বা পরিবর্তন করা যায়। আগে থেকেই পেজ থেকে থাকলে সেট ভিডিও ক্রিয়েটর করে নিন। ক্যাটাগরি Video Creator করা বাধ্যতা মূলক নয়। 

৩) পেজ ক্রিয়েট করার পর পেজের username সেট করুন এবং প্রয়োজনীয় সকল কিছু পূরণ করুন। যেমন, About, Button, Location ইত্যাদি।

৪) এরপর ভিডিও, পোস্ট, ছবি দিয়ে আপনার পেজকে জনপ্রিয় করতে থাকুন এবং লাইক বাড়াতে থাকুন।

৫) গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপ ষ্টোর থেকে Facebook Creator অ্যাপ ডাউনলোড করে আপনার পরিসংখ্যান দেখতে পারেন। আপনার পেজ যখন "এড ব্রেকস" বা মনিটাইজেশন এর জন্য যোগ্যতা অর্জন করবে তখন তা সেখানে দেখতে পারবেন। এবং সেটা চালু করার অপশন পাবেন।

৬) মনিটাইজেশন চালু হলে আপনার ভিডিও থেকে আয়ের বড় একটা অংশ আপনাকে দেবে।

দ্রষ্টব্যঃ ফেসবুক মনিটাইজেশন পাওয়ার যোগ্যতার যে মাপ-কাঠি (Watch Time. Page Like), সেটা যেকোনো সময় পরিবর্তন হতে পারেন। তাই আমরা সেটা এখানে উল্লেখ করলাম না।  আপনি Facebook Creator অ্যাপের মাধ্যমে দেখে নেবেন। আর, ভিডিও অবশ্যই আপনার নিজের হতে হবে। অর্থাৎ, কারো ভিডিও কপি করে দেয়া যাবে না। 

আপনি সহজেই মোবাইল দিয়ে Vlogging ভিডিও বানিয়ে তা আপলোড করতে পারেন। এছাড়া মোবাইল বা ক্যামেরা দিয়ে যেকোনো ভিডিও বানিয়ে তা দিতে পারেন। অবশ্যই অশালীন কনটেন্ট দেয়া যাবে না।

এই পোস্টটি শেয়ার করে আপনার টাইমলাইনে রাখুন এবং করে সবাইকে দেখার সুযোগ করে দিন। এবং প্রতিদিন ট্রিকিটকে ভিজিট করে নতুন নতুন বিষয়ের সাথে আপডেট থাকুন। ধন্যবাদ।

ফেসবুকে অনাকাঙ্ক্ষিত ট্যাগ বন্ধ করুন - আপনার অনুমতি ছাড়া ট্যাগ আপনার টাইমলাইনে পোস্ট হবে না।

ফেসবুকে অনাকাঙ্ক্ষিত ট্যাগ বন্ধ করুন - আপনার অনুমতি ছাড়া ট্যাগ আপনার টাইমলাইনে পোস্ট হবে না।
ফেসবুকে অনাকাঙ্খিত ট্যাগ বন্ধের সেটিংস

আপনাকে ট্যাগ করা তখনই যুক্তিযুক্ত হবে যখন আপনি সেই পোস্ট কিংবা ছবির অংশীদার থাকবেন। কিন্তু আমরা অনেকেই এটার ভুল ব্যবহার করে থাকি। মানুষের ট্যাগে আপনার টাইমলাইন বোঝাই হয়ে যায়। আপনার প্রোফাইল আপনার স্বতন্ত্রতা বজায় থাকে না। এর থেকে মুক্তি পেতে নিচের মতো করে সেটিংস করে নিন। এখন থেকে কেউ ট্যাগ করলে আপনি approve না করা পর্যন্ত আপনার ওয়াল এ পোস্ট হবে না।

এর জন্য আপনাকে প্রথমে Settings এ যেতে হবে। এরপর Timeline & Tagging। এখন Timeline & Tagging থেকে "Review posts you're tagged in before the post appears on your timeline?" এই অপশনটি ON করে দিন। আপনার কাজ শেষ। এটা করলেই যথেষ্ট।

এখন থেকে কেউ আপনাকে ট্যাগ করলে আপনার কাছে নোটিফিকেশন আসবে। এবং আপনি সেটা চেক করে Approve না করলে আপনার timeline এ পোস্ট হবে না।

আর আপনি যদি চান, আপনার পাশাপাশি কাদেরকে ট্যাগ করা হয়ে সেটা দেখার পর Approve করতে, তাহলে Review tags people add to your posts before the tags appear on Facebook? এই অপশনটিও ON করে নিন।

লেখাটি শেয়ার করে সবার মাঝে ছড়িয়ে দিন করে দিন। আশা করি সবাই অনেক উপকৃত হবে।

কত পদক্ষেপ ও কত মাইল হাঁটলেন এবং কত ক্যালোরি পুড়লো সব দেখুন অ্যাপের মাধ্যমে

কত পদক্ষেপ ও কত মাইল হাঁটলেন এবং কত ক্যালোরি পুড়লো সব দেখুন অ্যাপের মাধ্যমে

আমাদের হয়তো কারোরই সময় নেই গণনা করার যে, আজকে কত ধাপ বা কতদূর হাটলাম এবং এর ফলে কত ক্যালোরি নষ্ট হলো তা জানার। কিন্তু কেমন হয়, যদি এই কাজটি আপনার স্মার্টফোনই করে দেয় ছোট্ট একটি অ্যাপের মাধ্যমে। নিশ্চই মজাদার!

তাহলে দেরি না করে গুগল প্লে স্টোরে থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করুন।
App Name: Step Counter - Pedometer Free & Calorie Counter
Download Link: এখানে ক্লিক করুন
অ্যাপটি যেভাবে ব্যবহার করবেন:
১. ইনস্টল করে ওপেন করুন।
২. Male/Female সিলেক্ট করুন।
৩. আপনার উচ্চতা নির্বাচন করুন।
আপনার কাজ শেষ। এখন আপনি হাঁটলে স্টেপ কাউন্ট হবে। পকেট এ রেখে ইচ্ছা মতো ঘুরুন। স্টেপ কাউন্ট বন্ধ করতে চাইলে বা পূর্বের হিস্ট্রি রিসেট করতে চাইলে ডান পাশের অ্যারো বাটন এ ক্লিক করলে Turn Off, Reset সহ Timeline, Achievements সব অপসন দেখতে পারবেন।
অ্যাপটি খুবই সোজা। আপনি নিজেই সব কিছু এক্সপ্লোর করতে পারবেন। নিচের স্ক্রিনশট গুলি দেখে নিন:


এই অ্যাপটি মতো আরো অনেক অ্যাপ আছে। কিন্তু, এটি আমার কাছে হালকা এবং বেশি কার্যকরী মনে হয়েছে। অ্যাপটি মাত্র ৬ মেগাবাইটের।
লেখাটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। প্রতিদিন ট্রিকিটক ভিজিট করে সাথেই থাকুন। 

বয়স কমাতে আদালতে - এও কি সম্ভব?

বয়স কমাতে আদালতে - এও কি সম্ভব?
emile ratelband
ROLAND HEITINK/AFP/Getty Images

আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে নাম পরিবর্তন একদম স্বাভাবিক এবং সহজসাধ্য। আজকাল অস্ত্র পাচারের মাধ্যমেও লিঙ্গ পরিবর্তন করছে কেউ কেউ। কিন্তু, নেদারল্যান্ডসের একজন ব্যাক্তি আদালতে গেছেন বয়স কমাতে।

৬৯ বছর বয়সী নেদারল্যান্ডসের টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব এমিল রাটেলব্যান্ডের ব্যক্তি মনে করেন, এখন তাঁর বয়স হওয়া উচিত ৪৯ বছর। এমিল রাটেলব্যান্ডের জন্ম ১৯৪৯ সালের ১১ মার্চ। তিনি আদালতে আবেদনে বলেছেন, তাঁর জন্মতারিখ যেন ১৯৬৯ সালের ১১ মার্চ নির্ধারণ করা হয়। আদালতের কর্মকর্তারা মনে করছেন, বয়স কমানোর আইনি লড়াইয়ে রাটেলব্যান্ডের বিজয়ী হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম।

রাটেলব্যান্ড বয়স কমানোর উদ্দেশ্য, ‘বয়স যখন ৬৯, আমার অনেক সীমাবদ্ধতা থাকবে। কিন্তু বয়স যদি ৪৯ বছর হয়, তাহলে সে নতুন বাড়ি কিনতে পারবে, ভিন্ন ধরনের গাড়ি চালাতে পারবে, আরও বেশি কাজ করতে পারবে।

আদালত যদি রাটেলব্যান্ডের পক্ষে রায় দেন, তাহলে নেদারল্যান্ডস সরকারের দেওয়া তাঁর অবসরভাতা বন্ধ হয়ে যাবে।

মাত্র ১১ টাকায় স্মার্টফোন কিনুন ১১ নভেম্বর দারাজে

মাত্র ১১ টাকায় স্মার্টফোন কিনুন ১১ নভেম্বর দারাজে
daraz.com.bd sales day 11 November 2018 11 takay mobile
Photo Credit: daraz.com.bd

মাত্র ১১ টাকায় বাংলাদেশীদের জন্য স্মার্টফোন বিক্রি করবে দারাজ। দারাজ বাংলাদেশে প্রথমবারের মতো ‘বিশ্বের বৃহত্তম সেল ডে’ তে চীনের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আলিবাবার সহায়তায় এই বিশাল ছাড় এর আয়োজন করেছে। এটি অ্যামাজনের প্রাইম ডে’র তুলনায় ১৮ গুণ বড় ও ব্ল্যাক ফ্রাইডের তুলনায় আড়াই গুণ বড় হবে। ১১ নভেম্বর ২০১৮ তে ২৪ ঘন্টাই ক্রেতারা এই সুযোগ পাবেন। প্রতিটি পণ্যের বড় স্টক থাকবে। কিন্তু, ক্রেতাও প্রচুর হবে। তাই, ১১ নভেম্বর যত দ্রুত সম্ভব অর্ডার করুন আপনার কাঙ্খিত পণ্য।

১১ টাকায় মোবাইলের পাশাপাশি বিভিন্ন পণ্যে ৮৩% পর্যন্ত ছাড় এই দিনে। এছাড়াও রয়েছে মিস্ট্রি বক্স, ডাবল  টাকা ভাউচার, ফ্ল্যাশ সেল, ব্র্যান্ড ভাউচার, ব্যাংক ডিসকাউন্ট অফার।

১১ টাকায় মোবাইল অফারটি যেভাবে নেবেন:
মোবাইল দিয়ে কিনতে দারাজের মোবাইল এপসটি টি ডাউনলোড করুন। অথবা, ভিজিট করুন daraz.com.bd তে। মূলত দারাজ মোবাইল এপ এ বেশি সুবিধা ও অফার দিয়ে থাকে। দারাজে একাউন্ট খুলে নিন যদি না থেকে থাকে। এরপর ১১ নভেম্বর দারাজের হোম পেজে ১১ দশমিক ১১ ব্যানারটিতে ক্লিক করলে ১১ টাকায় মোবাইলের অফার সহ সকল  অফার দেখতে পারবেন। সেখান থেকে আপনার পছন্দের স্মার্টফোন বা পণ্য সিলেক্ট করে কার্ট এ যোগ করে বিকাশ সহ যেকোনো মাধ্যমে পেমেন্ট করে পণ্যটি অর্ডার করতে পারবেন।

দারাজ বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মোস্তাহিদুল হক বলেন, আগামী ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য দারাজের এ ১১ দশমিক ১১ ইভেন্ট বাকি অন্য সব ইভেন্টের চেয়ে আলাদা। আশা করছি , এটি দেশিয় ই-কমার্স শিল্পে বিপ্লব ঘটাতে সক্ষম হবে।

১১ দশমিক ১১ অফার ক্যাম্পেইন মূলত চীনের ই কমার্স  সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান আলিবাবার। ২০১৮ সালে আলিবাবা দারাজকে কেনায় প্রথমবারের মতো বাংলাদেশিরাও এই সুযোগ পেতে যাচ্ছে।

স্টোক হওয়ার আগের লক্ষণ গুলো জেনে নিন

স্টোক হওয়ার আগের লক্ষণ গুলো জেনে নিন
স্টোক বা পক্ষাঘাতের কারণ, লক্ষণ ও প্রতিকার

স্টোক বা পক্ষাঘাত এমন একটি রোগ যা বয়স্ক মানুষকে অকেজো করে ফেলে। এমনকি অপেক্ষাকৃত কম বয়সী মানুষও স্টোকে আক্রান্ত হতে পারে।
মস্তিষ্কে রক্ত চলাচল বন্ধ হলে বা রক্তনালী ছিড়ে গিয়ে রক্ত জমাট বেঁধে চলাচলে ব্যাঘাত ঘটলে মস্তিষ্কের কোনো অংশের কোষে যে স্থায়ী ক্ষতি হয়ে যায়, সেটাই স্ট্রোক।

স্টোকের কারণ:

  • উচ্চ রক্তচাপ
  • ডায়াবেটিস
  • রক্তে চর্বির আধিক্য
  • ধূমপান ইত্যাদি স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ায়।
সময়মতো স্টোকের লক্ষণ বুঝতে পারলে এবং দ্রুত চিকিৎসা নিলে স্টোকের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে রেহাই পাওয়া যায়।

স্টোকের লক্ষণ:

স্টোকের অর্থ বুঝতে ও মনে রাখার জন্য ইংরেজি শব্দ FAST - ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • এফ-(ফেস): মুখের একদিক বেঁকে যাওয়া বা চুলে যাওয়া।
  • এ-(আর্ম): কোনো হাতে কম শক্তি বোধ করা, ঝুলে পড়া বা হাত নাড়াতে না পারা।
  • এস-(স্পিচ): কথা জড়িয়ে যাওয়া বা কথা বলতে অপারগতা।
  • টি-(টাইম): স্টোকের লক্ষণ বুঝতে  পারলে দেরি না করে দ্রুত ডাক্তারের পরামর্শ ও চিকিৎসা নিন।
এর বাইরে আরও কিছু লক্ষণ আছে। যেমন:
  • মাথাব্যাথা
  • মাথাঘোরা 
  • মাথা হালকা বোধ করা
  • হাটতে গিয়ে ভারসাম্যহীনতা বোধ করা
  • দৃষ্টির সমস্যা
  • ভুল কথা বলা বা চেতনা লোপ পাওয়া
  • কখনো বমিও হতে পারে
স্টোকের পরে অনেকের খাবার গ্রহণে সমস্যা হতে পারে। খাবার গলায় আটকে যেতে পারে। খাবার বা পানি মুখ থেকে গড়িয়ে পড়তে পারে।

স্টোকের প্রতিরোধ:

স্টোক থেকে রেহাই পেতে যুবক বয়স থেকে সচেতন থাকুন। 
  • নিয়মিত রক্তচাপ মাপুন
  • রক্তচাপ বেশি হলে তা নিয়ন্ত্রণে আনুন
  • রক্তের শর্করা ও চর্বি  নিয়ন্ত্রনে রাখুন
  • ধূমপান বর্জন করুন
  • তাজা শাকসবজি বেশি খান
  • ওজন নিয়ন্ত্রণ করুন।
  • খাবারে লবন কম খান
মনে রাখবেন, মনে রাখবেন  স্টক বা পক্ষাঘাত আপনার  পুরো কর্ম মুখর জীবনকে থামিয়ে দিতে পারে।  তাই এখন থেকে সচেতন হন।

সূত্র: প্রথমআলো