অ্যান্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ বাঁচানোর সহজ কিছু উপায়। সকলের জন্য দরকারি একটি ট্রিকস

not enough space android problem fixing


বর্তমান সময়ে এন্ড্রয়েড ফোন ব্যবহার করে না এমন কম সংখ্যক লোক আছে।  কিন্তু বেশিভাগ সময় আমরা মেমরি এই মেসেজ টা পাই অধিক এ্যাপস ইনস্টল হয়ে থাকার কারণে। তবে কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করলে সহজেই অ্যান্ড্রয়েড ফোনের অনেকটা জায়গা বাঁচিয়ে নেয়া যায়।
তাহলে চলুন জেনে নিয়ে যাক এন্ড্রয়েড ফোনের স্টোরেজ বাঁচনোর উপায় সমূহ:

১. পুরোনো ফাইল ও এ্যাপের ফোল্ডার  ডিলিট করে দিন

আমরা অনেক পুরোনো অব্যাবহৃত ফাইল ডিলিট করতে ভুলে যাই। তাই সেগুলো সিলেক্ট করে ডিলিট করে দেবেন। দেখবেন, অনেকটা হালকা হবে ফোনটি!

২. ফোন স্টোরেজ থেকে ফাইল সরিয়ে নিন

ফোন থেকে সকল ফাইল সরিয়ে কার্ডে নিয়ে যান।

৩. ডাউনলোড স্টোরেজ পরিবর্তন

শেয়ারইট, ব্রাউজার, ক্যামেরার ডিফল্ট ডাউনলোড স্টোরেজ পরিবর্তন করে এসডি কার্ড করে দিন।

৪.এসডি কার্ডে এ্যাপ ইনস্টল

সব এ্যাপস ফোন মেমোরিতে না রেখে কিছু এ্যাপ এসডি কার্ডে মুভ করুন। এতে প্রচুর স্টোরেজ বাঁচবে। এ্যাপস ম্যানেজার এ গিয়ে স্টোরেজ এর ভিতর চেঞ্জ স্টোরেজ নামে অপসন এ গিয়ে এটি করে নেবেন।

৫. লাইট এ্যাপস ব্যবহার করুন

ফেইসবুক, মেসেঞ্জার, টুইটার, স্কাইপ সব কিছুর লাইট ভার্সন এ্যাপ ব্যবহার করুন। এগুলো খুব অল্প সাইজের এবং ফাস্ট হয়ে থাকে।

৬. ক্লিনার এ্যাপ ব্যবহার করুন

Clean Master এ্যাপটি ইনস্টল করুন। এটার মাধ্যমে জাঙ্ক ফাইল, এ্যাপস আনইনস্টল করার পর অপ্রয়োজনীয় ফোল্ডার এবং ফাইল ক্লিন হয়ে যাবে ক্লিন হয়ে যাবে। এছাড়া, ব্যাকগ্রাউন্ড এ চলা এ্যাপসগুলো হাইবারনেট বা বন্ধ হয়ে যাবে এক ক্লিকে। এক এক করে বন্ধ করতে হবে না।

এক নজরে এটার ফীচার সমূহ:
  • Junk cleaner (JUNK FILES)
  • Free Antivirus
  • Battery Saver
  • RAM Cleaner
  • Processor Cooler
  • Boost Phone
  • Private Photo/Video (Photo/ Video hide option)
এছাড়া আরো দরকারি অনেক ফীচার আছে এই এ্যাপে।

লেখাটি ভালো লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।


শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট