৯৯% মানুষই ভুল দেয় এই প্রশ্নের


প্রশ্ন:
একজন দোকানদার ৬০০ টাকায় একটি শার্ট বিক্রি করে। ক্রেতা ১০০০
টাকার একটি নোট দিলেন। টাকা ভাংতি না থাকায় পাশের দোকান থেকে
১০০০ টাকার ভাংতি এনে ক্রেতাকে ৪০০ টাকা দেন। পর¶ণে দেখা যায়,
পাশের দোকানি এসে বলে ১০০০ টাকার নোটটি জাল। এখন বিক্রেতার
মোট কত টাকা লোকসান হলো???
ক) ১০০০ টাকা
খ) ১৪০০ টাকা
গ) ১৬০০ টাকা
ঘ) ২০০০ টাকা

সঠিক উত্তর: ক) ১০০০ টাকা

অনেকের বিশ্বাস হয়নি বা বুঝতে সমস্যা হচ্ছে।  তাদের জন্য এই পোস্টের বাকি অংশটুকু:
এখানে দোকানদার শার্ট দিল ৬০০ টাকার। জাল নোট ভাংতি করে আসল টাকা বানিয়ে নিজের কাছে রাখল ৬০০ টাকা, ক্রেতাকে দিল ৪০০ টাকা। এখন দোকানদারের কাছে ৬০০ টাকাটা আসল টাকা।

ভাংতি প্রদানকারী জাল টাকা নিয়ে আসায় দোকানদার ৬০০ টাকার সাথে ক্যাশ বাক্স থেকে ৪০০ বের করে ১০০০ টাকা মিলিয়ে দেয়।

এখানে দোকানদার নিজের ক্যাশ থেকে শুধু ৪০০ টাকাই বের করে।
এখানে দোকানদারের শার্ট লস ৬০০ টাকার + ভাংতি প্রদানকারীকে ৪০০ টাকা = ১০০০ টাকা।

এখানে অনেকের প্রশ্ন আছে, ক্রেতাকে যে ৪০০ টাকা দেয়া হলো সেটা কোথায় যাবে?

আপনার মতে,
৬০০(শার্ট)+৪০০(ক্রেতা)+৪০০(ভাংতি প্রদানকারী)= ১৪০০।
কিন্তু এটা মনে রাখা দরকার, ক্রেতাকে ৪০০ টাকা দেবার সময় দোকানদার টাকাটা তার ক্যাশ থেকে দেয়নি। ভাংতি করা ১০০০ টাকা থেকে ৪০০ টাকা দিয়েছে।

এরপর ভাংতি প্রদানকারী জালটাকার অভিযোগ নিয়ে আসলে, দোকানদার নিজের শার্ট বিক্রির ৬০০ টাকা সাথে নিজের ক্যাশ বাক্স থেকে ৪০০ টাকা বের করে ১০০০ টাকা মিলিয়ে ভাংতি প্রদানকারীকে দেয়। এবং জাল টাকাটা নিজের কাছে নেয়, যেটা মূল্যহীন।

এখানে দেখা যাচ্ছে, দোকানদার শুধু একবারই নিজের ক্যাশ থেকে ৪০০ টাকা বের করে। সুতরাং, শার্ট বিক্রির ৬০০ টাকা সাথে ৪০০ টাকা ভাংতি প্রদানকারীকে দেয়ায় দোকাদারের লোকসান সব মিলিয়ে ১০০০ টাকা।

আশা করি বোঝাতে পেরেছি। আরো কোনো প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করুন। ধন্যবাদ।


শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট